Breaking News

Thursday, 24 January 2019

চেন্নাই সুপার কিংস কেনার লক্ষ্য, বলিউডের শাহেনশা বিগ বির।

বলিউডের  জীবন্ত কিংবদন্তি বিগ বি খেলাধুলায় কতটা আগ্রহী তা আমরা সকলেই জানি। বচ্চন আগ্রহী   ।অমিতাভ বচ্চনজীর পরিবার ইন্ডিয়ান সুপার লিগের (আই এস এল ) ফ্র্যাঞ্চাইজি ফুটবল টিম চেন্নাইয়ান এফসির আংশিক মালিকানা কিনেছিলেন । এছাড়া প্রো - কবাডি লিগে জয়পুর পিঙ্ক প্যান্থার্সের 50% শেয়ারের মালিকও ছিলেন বিগ - বির পুত্র অভিষেক বচ্চন ।

এবার বলিউডের শাহেনশর লক্ষ্য টি - ২০ ক্রিকেটেও ! প্রথম ও একমাত্র বিলিয়ন ডলার ব্র্যান্ড ভ্যালুর টুর্নামেন্ট ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ( আইপিএল ) যে কোনও একটি ফ্র্যাঞ্চাইজির আংশিক মালিকানা কিনতে আগ্রহী তিনি।তার ইচ্ছে ইন্ডিয়ান সিমেন্টসের মালিকানাধীন  চেন্নাই সুপার কিংসের অংশীদারিত্ব কেনা। সেই প্রয়াস যদি ব্যর্থ হয় তা হলে 2008 সালের  প্রথম আইপিএলে চ্যাম্পিয়ন রাজস্থান রয়্যালসেও শেয়ার কিনতেও  আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বচ্চন পরিবার।

অমিতাভ বচ্চন কর্পোরেশন লিমিটেডের পক্ষে অভিষেক  সম্প্রতি রাজস্থান  রয়্যালসের অন্যতম মালিক মনােজ বাদালের  সঙ্গে সাক্ষাৎ  করেছিলেন । লন্ডনে উভয়ের এই সাক্ষাৎকার হয়েছিল । এ-বিসি-এলের  পক্ষে CEO  রমেশ উভয়ের এই সাক্ষাৎকারের কথা স্বীকার করেছেন । তবে তিনি জানিয়েছেন চেন্নাই সুপার কিংসের সঙ্গে কথাবার্তা বেশি দূর গরাইনি । বচ্চনরা ছাড়াও 'ক্যাশ রিচ' আইপিএলের কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজির আংশিক মালিকানা কেনার আগ্রহ দেখিয়েছেন, বেশ কয়েকজন শিল্পপতি ও ব্যবসায়ী।

রাজস্থান রয়্যালসের আংশিক মালিকানা কিনতে ইচ্ছুক আরপিজি গ্রুপের কর্ণধার সঞ্জীব গোয়েঙ্কাও। তবে রাজস্থান রয়্যালসের অধিকাংশ শেয়ার এখনও আইপিএলের অন্যতম প্রধান উদ্ভাবক তথা  বিসিসিআই কর্তৃক বহিস্কৃত কর্মকর্তা ললিত মোদির শ্যালক সুরেশ চেলারামের দখলে রয়েছে । কর ফাঁকির মামলায় ললিত মোদি বহুদিন থেকেই দেশান্তরী হয়ে ইংল্যান্ডে আত্মগােপন করে রয়েছেন । 2013 সালে স্পট ফিক্সিং – এর অভিযােগে দুই বছরের জন্য নির্বাসিত হয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস । তারপর ওই ফ্র্যাঞ্চাইজির আংশিক মালিকানা এনডাের্সমেন্ট ছেড়ে দেন । বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি ও তাঁর স্বামী রাজ কুন্দ্রা।এখন বচ্চন পরিবার রাজস্থান রয়্যালস দলের আংশিক মালিকানা কিনলে ফ্র্যাঞ্চাইজির ব্র্যান্ড ভ্যালু অনেক বেড়ে যাবে । বচন পরিবার রাজস্থান রয়্যালসের সঙ্গে এনডোর্সমেন্ট চুক্তিতেও আগ্রহী । আর সেটা অবশ্যই অর্থের বিনিময়ে কিন্তুু সবকিছুই নির্ভর করছে ক্রিকেট বাের্ডে সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স ( সিওএ ) প্রধান বিনােদ রাই ও ডায়না এডুলজির সম্মতির ওপর । বিসিসিআই কর্তারা স্বাধীনভাবে এখন আর কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না । লােধা কমিটির শুদ্ধিকরণের সুপারিশ ও ক্রিকেট বাের্ডের সংবিধান পরিবর্তনের নির্দেশ এখনও কার্যকর হয়নি । যতদিন সেটা না হচ্ছে ততদিন বিসিসিআই ও আইপিএলের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা ন্যস্ত থাকবে সিওএ প্রধান বিনােদ রাইয়ের উপর ।

No comments:

Post a Comment