Breaking News

Monday, 7 January 2019

শিক্ষিকা সম্মেলন হতে চলেছে বীরভূমে। এটাই রাজ্যের প্রথম।

 শিক্ষিকা সম্মেলন আয়ােজিত হতে চলেছে বীরভূমে।  বীরভূম জেলার পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির শাখার উদ্যোগে আগামী ১৩ জানুয়ারি , রবিবার বােলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে এই শিক্ষিকা সম্মেলন হবে তার আগে রবিবার ছিল চূড়ান্ত পর্বের প্রস্তুতি সভা । 


 বিকাশ রায়চৌধুরী যিনি জেলা পরিষদের সভাধিপতি তিনি বলেন , “ এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই । রাজ্যের মধ্যে প্রথম এই জেলাতেই শিক্ষিকা সম্মেলন হচ্ছে । তাই এই উদ্যোগে সকলকে যাতে সামিল করা যায় , সে দিকেও খেয়াল রাখতে হবে । ” এ দিকে , প্রথম শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষা দিয়ে সবে দ্বিতীয় শ্রেণিতে ওঠা বাউল অন্ত প্রাণ এক শিশুশিল্পীর পড়াশােনার যাবতীয় দায়িত্ব গ্রহণ করল পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির বীরভূম জেলা শাখা ওই শিল্পীর নাম সুবর্ণা পাল । বাউলের চর্চার সঙ্গেই পড়াশােনা চালিয়ে যাওয়া তার লক্ষ্য । কিন্তু আর্থিক অনটন বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছিল । এই অবস্থায় তার পড়াশােনার যাবতীয় দায়িত্ব গ্রহণ করল সমিতির বীরভূম জেলা শাখা।


সুবর্ণা যত দিন পড়াশােনা করবে , তার যাবতীয় খরচ বহন করবে সমিতি ।
সমিতির পক্ষ থেকে তা জানানাে হয়েছে ।প্রস্তুতি সভাতেই সুবর্ণার হাতে স্কুলের ড্রেস সহ কিছু শিক্ষা সামগ্রী তুলে দেওয়া হয় । নতুন ক্লাসে উঠেই নতুন স্কুলড্রেস পেয়ে  সুবর্ণা অত্যন্ত খুশী ও আনন্দিত। সুবর্ণা বাউল গান গাইতে ভালবাসে । উপহার পাওয়ার পরে বাউল গান করেও শােনায় সুবর্ণা।

চলতি মাসের ৩ জানুয়ারি ইলামবাজার ভিআইপি মােড়ে প্রায়
এক হাজার বাউল শিল্পী নিয়ে সমবেত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । ওই মঞ্চ থেকে জয়দেবের লােক ও বাউল উৎসবের সূচনা করেন । অন্য দিকে বাউলশিল্পীদের সম্মানিতও করেন । এই অবস্থায় বাউলচর্চার সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারলে সুবর্ণারও শিল্পী হয়ে ওঠার সম্ভাবনা রয়েছে বলেই মনে করছে তার পরিবার । সুবর্ণার বাবা । স্বপন পাল বলেন , “ সব সময় চেয়েছি বাউলের চর্চার পাশাপাশি মেয়ে পড়াশােনাও করুক । কিন্তু , একটা সময় পর দু ’ দিকের খরচ চালাতে পারতাম না । এর ফলে আমার অনেক সুবিধা হল । এতে খুশি সুবর্ণার স্কুল নায়েকপাড়া শিশু সেবাভবনও ।

পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির বীরভূম জেলা শাখার সভাপতি প্রলয় নায়েক জানান , তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল এই দায়িত্ব নিতে উৎসাহ দিয়েছিলেন। তারই সমর্থনে এই উদ্যোগ নেওয়া সম্ভব হয়েছে বলে জানান তিনি । আরও বলেন , “ আজকের পর থেকে সুবর্ণা যত দিন পড়াশােনা করবে , ' ওর পড়াশােনাকেন্দ্রিক সব দায়িত্ব সংগঠনের । ভবিষ্যতে ও প্রতিষ্ঠিত হলে আমরাই সবথেকে বেশি খুশি হব ।


No comments:

Post a Comment