Breaking News

Saturday, 2 February 2019

এক নজরে দেশের নতুন বাজেট,2019।


ভোটের মুখে কৃষকদের মন জয়ে অন্তর্বর্তী বাজেটে নয়া প্রকল্প ঘোষণা করলেন মন্ত্রী পীযূষ গয়াল। এই প্রকল্পে ২ হেক্টরের কম জমির মালিকদের সাহায্য করতে বছরে ৬০০০ টাকা করে দেবে কেন্দ্র।
এই টাকা সরাসরি কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা পড়বে। গয়ালের দাবি, এই প্রকল্পে ১২ কোটি কৃষক পরিবার উপকৃত হবে।       

•দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগেও ছাড়, অর্থাৎ প্রকৃতপক্ষে       সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত কর দিতে হবে না।

•৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ব্যক্তিগত আয়ে কোনও কর দিতে হবে না।

• আয়করে বিপুল ছাড়ের ঘোষণা।

•কর সংগ্রহ বেড়েছে ১২ লক্ষ কোটি টাকা।

•তফশিলি জাতি ও উপজাতিদের জন্য বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে।

•প্রতিরক্ষা খাতে বাজেট বরাদ্দ তিন লক্ষ কোটি টাকা।

•২০২২ সালের মধ্যেই ভারত মহাকাশে মানুষ পাঠাবে ভারত।

•আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে গ্রামীণ শিল্পোন্নয়নে জোর।

•অধিকাংশ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যে ডিএসটি ০ থেকে ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব।

•কালো টাকা উদ্ধারে গত পাঁচ বছরে একাধিক পদক্ষেপ করা      হয়েছে।

•তার ফলে ১.৩ লক্ষ কোটি টাকা আয়করের আওতায় এসেছে।

 •বাড়ি কেনা বা তৈরির ক্ষেত্রে জিএসটি কমানোর প্রস্তাব দেওয়া হবে জিএসটি কাউন্সিলকে।

•সিনেমার টিকিটে কর জিএসটি কমিয়ে ১২ শতাংশ করার          প্রস্তাব।

•ব্যবসায়ীদের রিটার্ন এখন সম্পূর্ণ অনলাইন, সহজ ও সরল।

•স্বাধীনতার পর থেকে ‘জিএসটি’ দেশের সবচেয়ে বড় কর         সংস্কার।

•ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের কথা মাথায় রেখে জিএসটি সংস্কার করা হয়েছে।

•৯৯.৫৪ শতাংশ রিটার্ন পাশ করে দেওয়া হয়েছে।

•প্রত্যক্ষ কর আদায় ৬.৩৮ লক্ষ কোটি থেকে বেড়ে হয়েছে ১২ লক্ষ কোটি টাকা।

•প্রত্যক্ষ কর সরলীকরণ করা হল।

•জন ধন যোজনায় ৬৪ কোটি নতুন অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে।

•সিনেমা নির্মাতাদের জন্য সিঙ্গল উইন্ডো সিস্টেম চালু হবে।

•আগামী ৫ বছরে ১ লক্ষ ডিজিটাল গ্রাম তৈরির লক্ষমাত্র ধরা হয়েছে।

•উত্তর-পূর্বের জন্য পরিকাঠামো ক্ষেত্রে বরাদ্দ ২১ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে, বরাদ্দ হয়েছে ৫৮১৬৬ কোটি টাকা।

•রেলের বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে, প্রয়োজনে আরও বাড়ানো হবে।

•যাত্রী নিরাপত্তার নিরীখে এটাই নিরাপদতম বছর।

•গত পাঁচ বছরে সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদন বেড়েছে ১০ লক্ষ।

•অপ্রচলিত শক্তির উৎস বাড়াতে আন্তর্জাতিক চুক্তি হয়েছে।

•ব্রডগেজ লাইনে সমস্ত রক্ষীবিহীন লেভেল ক্রসিং তুলে দেওয়া হয়েছে।

•ইপিএফ-এর সদস্য হলে মিলবে ৬ লক্ষ টাকার বিমা।

•সেনা বিভাগের কর্মী-অফিসারদের বেতন বাড়ানোর প্রস্তাব।

•‘প্রধানমন্ত্রী কৌশল বিকাশ যোজনা’ য় এক কোটি যুবককে কারিগরি প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

•আগামী অর্থবর্ষে ‘প্রধানমন্ত্রী উজ্জ্বলা যোজনা’ য় ৮ কোটি গ্যাস কানেকশন দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে।

•সংরক্ষিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের পেনশন ন্যূনতম ৩০০০ টাকা করা হল।

•মাছ চাষে উৎসাহ বাড়াতে ও সাহায্য করতে তৈরি হবে পৃথক মৎস্য দফতর।

•গো-রক্ষায় ‘রাষ্ট্রীয় গোকুল যোজনা’, বরাদ্দ ৭৫০ কোটি।

•দুই হেক্টরের কম জমির মালিক কৃষকদের সাহায্য করতে ‘প্রধানমন্ত্রী কিষাণ যোজনা’।

•প্রান্তিক কৃষকদের বছরে ৬০০০ কোটি টাকা দেওয়া হবে এই প্রকল্পে।

•এই প্রকল্পে ১২ কোটি কৃষক পরিবার উপকৃত হবে।

•‘আয়ুষ্মান ভারত’ প্রকল্পে ১০ লক্ষ পরিবার উপকৃত হয়েছে।

•হরিয়ানায় ২২তম এইমস প্রতিষ্ঠিত হবে।

•আর্থিক অপরাধীদের দেশে ফেরানো সম্ভব হয়েছে।

•৩ লক্ষ কোটি টাকার অনাদীয় ঋণ উদ্ধার হয়েছে।

•অর্থনীতিতে দেশের মনোবল বাড়িয়েছে সরকার।

•২০১৮-১৯ সালে রাজস্ব ঘাটতি কমে হয়েছে ৩.৪।

•এই সময়ে ২৩ হাজার ৯০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ এসেছে।

•কৃষকদের আয় দ্বিগুণ বেড়েছে, কমেছে দুর্নীতি।

•মূল্যবৃদ্ধির হার অনেক কমেছে।

•চাকরি ক্ষেত্রে উচ্চ বর্ণের জন্য ১০ শতাংশ সংরক্ষণ নিশ্চিত করেছে সরকার।

•রাজস্ব ঘাটতি জিডিপি-র ২.৫ শতাংশ হয়েছে।

•প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনায় রাস্তা নির্মাণ ৩ গুণ বাড়ানো হয়েছে।

•প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় গত চার বছরে ১ কোটি ৫৩ লক্ষ বাড়ি তৈরি হয়েছে, যা আগের সরকারের চেয়ে প্রায় তিন গুণ।

•একশো দিনের কাজে ৬০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব বাজেটে।

•জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থায় ব্যাপক সংস্কার হয়েছে।

No comments:

Post a Comment