Breaking News

Thursday, 7 February 2019

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা সাবধান!এবার মোবাইল স্ক্যানার থাকবে পরীক্ষাকেন্দ্রে।


রাখে হরি মারে কে, এই চিন্তাধারা এবার  উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের না করাই ভালো।প্রযুক্তি ও বিজ্ঞানের এই যুগে সবকিছুই আধুনিক হয়ে গেছে। পরীক্ষায় চুরি করতে খসড়া বা মাইক্রো নিয়ে আসাটা অনেক পুরোনো হয়ে গেছে, আজকাল বহু পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় চুরি করার জন্য  পরীক্ষাকেন্দ্রে উন্নত মানের ব্লুটুথ ডিভাইস ও মোবাইল ফোন নিয়ে আসছে। প্রশ্নপত্র ফাঁস তথা পরীক্ষায় এই সমস্ত রকম কাজ  রুখতে নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত নিল পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। তাই এবার পরীক্ষাকেন্দ্রে মোবাইল নিয়ে প্রবেশ রুখতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করতে চলেছে শিক্ষা সংসদ। রাজ্যের প্রতিটি পরীক্ষাকেন্দ্রে ব্যবহার করা হবে অত্যাধুনিক মোবাইল স্ক্যানার। কেউ মোবাইল নিয়ে প্রবেশ করতে চাইলেই স্ক্যানার তা ধরে ফেলবে। প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে স্ক্যানারে দুই বার করে সার্চ করা হবে। এই স্ক্যানার এর কন্ট্রোল রুম খোলা হবে প্রধান শিক্ষকের ঘরে। কোনও পরীক্ষার্থীর কাছে মোবাইল ফোন পাওয়া গেলে, তাঁকে পরীক্ষায় বসার অনুমতি দেওয়া হবে না ।

পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস জানিয়েছেন, পরীক্ষায় যতরকম বিভ্রাট, প্রশ্নফাঁস সব কিছুই হয় মোবাইলের মাধ্যমে। তাই পরীক্ষার্থীরা যাতে কোনওরকমভাবেই মোবাইল নিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে বিশেষ নজর রাখা হচ্ছে। গতবছর ময়নাগুড়ির একটি স্কুলে প্রশ্নফাঁসের ঘটনা প্রকাশ্যে আসায়, অপমানিত হতে হয়েছিল পর্ষদকে। পরীক্ষার প্রায় ঘণ্টা দেড়েক আগে প্রশ্নপত্র খুলে ফেলেছিলেন ময়নাগুড়ির সুভাষনগর হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক। সেই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার আগেভাগে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রশ্নপত্র খোলা নিয়েও বিশেষ নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে সংসদের তরফ থেকে । এতদিন পর্যন্ত পরীক্ষার কিছুক্ষণ আগে প্রধান শিক্ষকের ঘরে খোলা হত প্রশ্নপত্র। কিন্তুু  সেসময় প্রধান শিক্ষক এবং সহকারী শিক্ষকরা ছাড়া অন্য কেউ উপস্থিত থাকতে পারতেন না।এমন কি  পুলিশকর্মীরাও থাকতেন প্রধান শিক্ষকের ঘরের বাইরে। এবার থেকে সেটা আর হবে না উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ জানিয়েছেন  পুলিশের সামনেই খুলতে হবে প্রশ্নপত্রের সিল। প্রধান শিক্ষক যখন প্রশ্নপত্রের বান্ডিল খুলবেন তখন পুলিশকর্মীরা তাঁর ঘরের মধ্যেই উপস্থিত থাকবেন।

মাধ্যমিক পরীক্ষার ক্ষেত্রেও প্রশ্নপত্র খোলা নিয়ে বিশেষ নির্দেশিকা জারি করেছে পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। তবে, মোবাইল সংক্রান্ত এই নির্দেশিকা এখনও জারি করা হয়নি।

No comments:

Post a Comment